৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
 
শিরোনামঃ
জেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক টিপুর ভাই আজিম মোল্লা গুলিবিদ্ধ : আশংকাজনক অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেলে ভর্তি   |  পাবনার কৃতি সন্তান সাইফুল আলম স্বপন চৌধুরী বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক পদে দ্বিতীয় বারের মত নির্বাচিত   |  সুজানগর উপজেলা জাতীয়তাবাদী বন্ধুদলের কার্যকারী নির্বাহী কমিটির অনুমোদন   |  বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ইঞ্জিঃ আব্দুল আলীমের ছবি সংবলিত বিলবোর্ড ভাংচুরের প্রতিবাদে ভাঙ্গুড়ায় বিক্ষোভ   |   বিপুল পরিমান মাদক দ্রব্য সহ এক মাদক বব্যসায়ী গ্রেফতার  |  অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে দুদকের দুই সদস্য বিশিষ্ট অনুসন্ধান কমিটি গঠন  |  সাঁথিয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক ব্যাক্তির মৃত্যু   |  ঈশ্বরদীতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস’ পালিত   |  সুজানগরে দ্বিতীয় শ্রেণীর স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে এক পৌঢ় আটক  |  খাদ্যে ভেজালকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে---- জেলা প্রশাসক   |  ঈশ্বরদীতে বিদেশী পিস্তল, রিভলবার, বিপুল পরিমান গোলাবারুদ ও মাদকদ্রব্যসহ দুই অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী গ্রেফতার  |  সাঁথিয়ায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ ছাত্রলীগ সভাপতিসহ আহত-৩  |  চাটমোহর রেলস্টেশনের বুকিং সহকারি মাতাল অবস্থায় গাঁজা সহ আটক  |  ভাঙ্গুড়া উপজেলা ছাত্র শিবিরের সভাপতি ও সেক্রেটারিসহ ৪ শিবির নেতা-কর্মী গ্রেফতার  |  নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ শিকার   |  সুজানগরে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল স্কুল ছাত্রী কেয়া  |  সাংবাদিক এবিএম ফজলুর রহমান পাবনা চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক নির্বাচিত  |  পাবনার সাঁথিযায় অবৈধ দোকান ঘর উচ্ছেদ :সরকারি জমি উদ্ধার  |  এডভোকেট রবিউল করিম রবি বিচারপতি সৈয়দ আমীর আলী স্বর্ণপদকের জন্য মনোনিত  |  রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন বন্ধের প্রতিবাদে ঈশ্বরদীতে মানববন্ধন করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ  |  

সর্বশেষ

পাবনা জেলা বিএনপির কমিটি হবে শক্তিশালী গনতান্ত্রীক পন্থায় পাবনানিউজ২৪.কমের সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে - রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু

Nov 16, 2016, 11:49:30 AM

পাবনা জেলা বিএনপির কমিটি হবে শক্তিশালী গনতান্ত্রীক পন্থায় পাবনানিউজ২৪.কমের সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে - রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু

গত ১৩ নভেম্বর পাবনা জেলা বিএনপির আয়োজনে প্রতিনিধি সম্মেলনে প্রধান বক্তা  হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক, নাটোর জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক উপমন্ত্রী এডভোকেট  রুহুল  কুদ্দুস তালুকদার দুল। ঐ দিন সন্ধায় রত্বদ্বীপ রিসোর্টে একান্ত সাক্ষাৎকারদেন পাবনা নিউজ ২৪.কমের  সহকারী সম্পাদক খালেদ হোসেন পরাগ ও নিজস্ব প্রতিনিধি রাকিবুল হাসান কে ।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনকে আপনারা প্রত্যাখান করেছিলেন এই সরকারের অধিনে আগামী সংসদ নির্বাচনে আপনারা যাবেন কি? 

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, পৃথিবীর ইতিহাসে কোন দেশে এমন নজির নেই,অর্ধেকের বেশি আসন অর্থাৎ বিনা ভোটে ১৫৩ আসনে এমনিতেই জয় লাভ করে সেদিন সমস্ত মানুষ দেখেছিল যে, কেমন নির্বাচন হয়েছিল তা বাংলার মানুষেরা দেখেছিল। ৫ জানুয়ারী নির্বাচনে না যাওয়াটাই পরে প্রমানিত হয়েছে, যে কি রেজাল্ট হত স্থানীয় সরকার নির্বাচনে তা প্রমান হয়েছে।তাদের কারচুপি আর এক তরফা সাপোর্ট করাতে। সরকার জোর করে জনগনের ঘারে চেপে বসে আছে, তাই ৫ জানূয়ারী নির্বাচনে না যাওয়া টা  আমাদের সঠিক সিদ্ধান্ত ছিল। আমরা আগে অবস্থা দেখবো যদি পরিবেশ অনুকূলে পাই তবে আমরা নির্বাচনে অংশ নিব নচেৎ নয়।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ আপনারা সরকারকে অবৈধ বলেছেন, নির্বাচন কমিশনকে পক্ষপাতদুষ্ট বলেছেন অথচ এ সরকার এবং নির্বাচন কমিশনের অধিনে আপনারা প্রায় সব স্থানীয় নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন কেন ? আর এসব নির্বাচনে আপনাদের দলীয় প্রার্থীদের পরাজয়ের কারণ কি?

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুঃ আমরা এই জন্য গিয়েছি যে ৫ জানূয়ারী নির্বাচনে না গিয়ে আমরা ভুল করেছিলাম অনেকেই বলে, তাদের কে বুঝানোর জন্যই আমরা অংশ নিয়েছি, যেহেতু স্থানীয় নির্বাচন সরকার গঠনের নির্বাচন নয় তাই আমরা অংশ গ্রহন করেছি, ৫ জানুয়ারী নির্বাচনে না গিয়ে আমরা ভুল করেছি বা সঠিক সিদ্ধান্ত এই স্থানীয় নির্বাচনে আমরা জনগনকে বুঝিয়ে দিয়েছি। সরকারের নির্দেশে তারা আসন গুলো কেড়ে নিয়েছিল আর জনগন দেখেছে আওয়ামীলীগ কাকে বলে কত প্রকার ও কিকি। তারা মানুষের ভোটের অধিকার ও ভাতের অধিকার সবগুলোই হরণ করেছে। যে দল গনতান্ত্রীক অধিকার আদায়ের জন্য আজীবন সংগ্রাম করেছে সে দলের নেত্রীই আজ গনতান্ত্রীক পদ্ধতি হরন করেছে তা এই নির্বাচনের মাধ্যমেই প্রমাণিত হয়েছে।আর আমাদের দলীয় প্রার্থীদের পরাজয়ের কারন হল তারা দলীয় লোক ও প্রশাসনকে ম্যানেজ করে ভোট কারচুপি করেছে এমন কেন্দ্র ছিল যেখানে আমাদের প্রার্থীদের প্রবেশ করতে দেয়নি ক্ষমতাশীলরা, অনেক জায়গাতে আমাদের পার্থীদের কনঠাশা করে তারা বসিয়ে দিয়ে তারা নির্বাচন করতে দেয়নি ফলে আমাদের লোকেরা দাড়াতে পারেনি বিধায় আমাদের পড়াজয় বরণ করতে হয়েছে।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে সরকার আপনাদের মতামত কে গুরুত্ব দিচ্ছে কি? না দিলে আপনাদের করণীয় কি?

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু: নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন, সরকার গুরত্ব দিচ্ছে কি দিচ্ছে না সেটা আমাদের দেখার বিষয় নয় কারণ দেশের ৭০ ভাগ জনগন আওয়ামীলীগদের বিরুদ্ধে বা বিএনপি কে সার্পোট করে, আমেরিকার পররাষ্ট্র মন্ত্রী আমাদের নেন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করে প্রমাণ করেছে যে, বি.এন. পি এক শক্তিশালী রাজনৈতিক দল এবং চিনের প্রেসিডেন্ট নেত্রীর সাথে দেখা করে প্রমাণ করেছে যে, বি.এন.পি সারা পৃথিবির গনমানুষের জনপ্রিয় দল।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ বিএনপির রাজনৈতিক ভবিষ্যত কি, বার বার কেন আন্দোলন থেকে পিছু হটছে?

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু:  ভবিষ্যত কি আর আমরা তো রাজনৈতিক দল যা চলমান ১৯৮৭ সালে এরশাদ বিরোধি আন্দোলন বি.এন.পি জামাতের সকল নেতাকর্মীদের জেলে ভরে  তারা এক তরফা নির্বাচন করেছিল ১৯৮৮ সালে সকলকে ছাড়া । তো এক সময় নির্বাচন দিলে তারা ক্ষমতাচ্যুত হয়, তাই আমি বলতে চাই ক্ষমতা কারো জন্য চিরস্থায়ী হয় না, এ সরকারের বিরুদ্ধে আমাদের আন্দোলন চলছে চলবে। আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার জন্যই তো আমাদের এই সাংগঠনিক সফর। অনেক  নেতা কর্মী জেলে আছে গুম হয়েছে আহত ও পঙ্গুত্ববরণ করেছে ও মামলায় জর্জরিত হয়ে আছে এ গুলোর ভার কাটিয়ে তাদের সাংগঠনিকভাবে সংগঠিত করে আমরা আবার তাদের বিরুদ্ধে ঘুরে দাড়াবো তারই আলোকে সারা দেশের তৃণমূল নেতাদের সাথে আমাদের আলোচনা চলছে এবং তাদেরকে আমরা সুসংগাঠত করছি ও বিভিন্ন বিষয়ে দিকনির্দেশনা মূলক বৈঠক ও চলছে ।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ  সাম্প্রতিক সময়ে আলোচিত ইস্যু সংখ্যালঘু নির্যাতন? সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তায় বিএনপির বিরুদ্ধেও ব্যর্থতার অভিযোগ তোলা হয়। এ সম্পর্কে আপনার বক্তব্য কি?

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু:  আপনারা দেখেছেন স্বাধীনতার পরে পাবনায় আওয়ামীলীগেরা সব হিন্দুদের বাড়ি দখল করেছিল। যত সংখ্যালঘুদের উপর হামলা হয়েছে সকল জায়গাতেই কিন্তু বর্তমানের ক্ষমতাশীলরা আটক হয়েছে এবং এই যে হামলা ও বাড়ীঘর ভাংচুর করে আমাদের লোকের উপর দোষ চাপিয়েছে। আপনারা দেখেছেন বিগত আন্দোলন সংগ্রামে আমাদের অসংখ্য নেতা কর্মী জেল জুলুমে আহত পঙ্গুত্ব ও হামলা মামলার ভয়ে বাড়ি পালিয়ে বেড়াচ্ছে  এই মধ্যে তারা কিভাবে সংখ্যালঘুদের উপর হামলা করবে? কয়েকদিন আগে নাছির নগরের হামলার ঘটনায়  ক্ষমতাশীলদের ৪ জনকে বহিষ্কারের মাধ্যমে প্রমাণ করেছে সংখ্যালঘুদের উপর হামলা এই সরকারের লোকেরাই জড়িত । আর সংখ্যালঘুদের উপর হামলা তাদের বাড়িঘর ভাঙচুর এই সরকারের আমলেই বেশি হচ্ছে। আমি বিশ্বাস করি বিএনপি এর শাসন আমলেই সংখ্যালঘুরা অনেক অনেক নিরাপদে থাকে। আপনারা দেখেছেন রামুর ঘটনা আবার নাটোরের অসংখ্য হিন্দুদের বাড়ি তারা দখল করেছিল।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ  ২০১৪ সালে দল গোছানোর কথা বলে আন্দোলন কে বন্ধ করা হলে ও আজ প্রায় ৩ বছর হতে চলেও বেশি জেলা ও মহানগর কমিটি এখনও ঘোষণা হয়নি কেন...?

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু:  আমরা সারা দেশ সফর করেছি একটি শক্তিশালী কমিটি করার জন্য, আগামী ডিসেম্বর নাগাত আমরা সকল মহানগর ও জেলা পর্যায়ের কমিটি গঠনের চেষ্টা করবো।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ  আগামী নির্বাচন কি সুষ্ঠ হবে বলে মনে করেন?

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু:   আমরা তো আগেই বলেছি এই সরকারের অধীনে কোন নির্বাচন সঠিক হবে না। বাংলাদেশে অসংখ্য রাজনৈতিক দল আছে তাদের ছাড়া কখনও একতরফা  নির্বাচনে গেলে সেটা গ্রহণ যোগ্য হবে না।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ বিএনপি ক্ষমতায় গেলে বিচার বর্হিভূত ভাবে হত্যাকান্ডের কোন বিচার করবে কি?

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু: বিএনপি ক্ষমতায় গেলে বিচার বর্হিভূত হত্যাকান্ডের বিচার করবেন, আসলে বিচার বার্হিভূত হত্যা কোন ভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। তাহলে বিচার বিভাগ কেন আমাদের দেশে একজন অপরাধ করতেই পারে তাই বলে তাকে ধরে নিয়ে এসে প্রশাসন হত্যা করবে এটা কখনোই গ্রহনযোগ্য হবেনা, আমরা এটা বিচার করব।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ সারাদেশে বিগত আন্দোলন চলাকালিন সময় নিহত. গুম.ও পঙ্গু অসহায় পরিবার গুলোর পাশে দাড়ানোর বিষয় কোন উদ্যোগ নিয়েছে কি.........বি এন পি?

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু:  হ্যাঁ আমরা  পঙ্গুত্ব বরণকারিদের পাশে থাকছি এবং থাকব। যতটুকু পারি সাধ্যনুযায়ী আমরা তাদেরকে দেখাশুনা করার চেষ্টা করছি এবং করব। আর ভবিষ্যতে তাদের বিশেষ সুযোগ সুবিধা দেওয়া হবে।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ  বিএনপির হাজার হাজার নেতাকর্মী মামলায় ঝুলে হয়রানির শিকার হচ্ছে। এমতাবস্থায় দলকে সংগঠিত করে আগামী নির্বাচনে অংশ নিলে ফলাফল কতুটুকও আপনাদের পক্ষে আসবে। 

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু: সমস্ত নেতাকর্মীর মামলা আছে সেটা আমরা দেখছি এবং এটা এক সময় সমস্ত মামলা শেষ হয়ে যাবে । পক্ষে কতটুকু আসবে আমরা বলতে পারি না তবে আমরা যদি পরিবেশ নিজেদের অনুকূলে পাই নির্বাচনে অংশ নিব নচেৎ নয়।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ    বিএনপিতে ত্যাগি, পরিক্ষিত অনেক নেতাদের মূল্য নেই।হাইব্রিড নেতাদের ভীড়ে প্রকৃত নেতাকর্মীদের অবমূল্যায়ন করা হচ্ছে। কিভাবে দেখছেন।

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু:  আসলে একটা দলের মধ্যে ভালো মন্দ সবাই থাকে এটা পুরোটাই নিয়ন্ত্রনে আনা যায় না। তবে যতটুকু আমরা পারি নিয়ন্ত্রনে আনতে চেষ্টা করছি বা করব ।আসলে এখন যারা দূরদিনে আমাদের পাশে থাকবে আগামী দিনে তাদের দলে টানব।এবং তাদের আমরা মূল্যয়ন করব।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ    বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক প্রিন্ট ও সোসাল মিডিয়াতে একটি কথা উঠে আসছে যে আপনাদের দলের মধ্যে অনেক সরকার দলীয় লোক আছে এটা কতটুকু বাস্তবসম্মত? 

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু: আসলে বিএনপি একটি বৃহৎ রাজনৈতিক দল অসংখ্য নেতা কর্মী আছে বিভিন্ন লোক বিভিন্ন নেতার প্রতি ভুল বুঝাবুঝির কারনে তারা এই কথাগুলো বলে থাকে এই অভিযোগ বাস্তব সম্মত না ।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ  এই সরকারের সাফল্য আর ব্যর্থতা আপনারা কিভাবে দেখছেন ? 

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু: এই সরকার অনেক উন্যয়ন করছে এটা ঠিক আছে যেমন পদ্মা সেতু ও রাস্তাঘাট সহ অনেক বড় বড় কাজ করছে এগুলো নিশ্চয়ই ভাল কাজ। কিন্তু আওয়ামীলীগ করলে তাকে সুবিধা দেয় আর যারা আওয়ামীলীগের বাইরে থাকবে তাদের সুবিধাতো দুরের কথা এর পরিবর্তে আমাদের অনেক নেতাকর্মীরা গুম, খুন ও জেল জুলুমের সীমাহীন নির্যাতনের ইষ্টিম রুলার সহ্য করতে হয়েছে । যেখানে আইনের শাসন নাই গনতান্ত্রিক অধিকার নেই। সুতরাং তাদের এই সফলতা ম্লান হয়ে গেছে।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ  বিএনপি গনতন্ত্রের জন্য লড়াই করছে বলে দাবি করে কিন্তু দলের মধ্যে গনতন্ত্রের লেশ নেই। অভিযোগ আছে তৃণমূল নেতাকর্মী আমরা আশা করতে পারি পাবনা জেলা বিএনপি কমিটি গনতান্ত্রিক উপায়ে গঠিত হবে? 

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু: আসলে বিগতদিনে কি হয়েছে আমি জানি না তবে সামনে পাবনা জেলা কমিটি হবে শক্তিশালী গনতান্ত্রিক পন্থায়। শক্তিশালী গনতান্ত্রীক পন্থায় যদি কমিটি না হয় তাহলেতো আমরা আন্দোলনের সঠিক চুড়ায় পুছঁতে পারবনা ।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ  বারবার বিএনপি আন্দোলনের ঘোষণা দিচ্ছে কিন্তু কোনো কর্মসূচি নেই, এর কারণ কী?

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু : ঐতিহাসিক একটি ঘটনা উল্লেখ করলে জানা যায়। নবাব সিরাজদ্দৌলা যখন পলাশীর প্রান্তরে ইংরেজদের বিরুদ্ধে যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছিল, তখন মীর মদন ও মহন লাল নবাবকে বলেছিলেন হুজুর আপনি মীর জাফরকে প্রধান সিপাহ সালার করবেন না। মীর জাফর ইংরেজদের সঙ্গে আঁতাত করেছে। তাকে প্রধান সিপাহ সালার করা হলে যুদ্ধে পরাজয় আমাদের অবধারিত। নবাব সেদিন মীর মদন ও মহন লালের কথা শুনেননি। সেদিন যদি নবাব মীর মদন ও মহন লালের কথা শুনতেন তাহলে সিরাজদ্দৌলাকে পলাশীর প্রান্তরে এভাবে বিপর্যয় ও পরাজয় বরণ করতে হতো না। ঠিক তেমনি বিএনপিতে কিছু মীর জাফর আছে, যারা বারবার বেগম জিয়ার সঙ্গে বেঈমানি করেছে। এখনও করছে। যেদিন বেগম জিয়ার ডানে ও বাঁয়ে কোনো মীর জাফর থাকবে না, সেদিন বিএনপি সফল হবে।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ রাজনীতি করতে এসে জেল-মামলার ভয়ে পিছিয়ে যাওয়াকে কীভাবে মূল্যায়ন করবেন?

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু : রাজনীতিতে জেল-জুলুম থাকবে। এ বিষয় মাথায় নিয়েই রাজনীতিতে এসেছি। কিন্তু বিনা কারণে মাসের পর মাস, বছরের পর বছর জেলে আটকে রাখা হবে এটাতো হতে পারে না। আমি সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলব, সত্য কথা বলব এই কারণে আমাকে জেলে আটক করা হবে, এটাতো গণতন্ত্র নয়। গত কয়েক বছরে আমাকে চার বছর জেলে থাকতে হয়েছে।

পাবনানিউজ২৪.কমঃ সাক্ষাৎকারটি দেওয়ার জন্য আপনকে  ধন্যবাদ ।

রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু : অাপনাদেরকেও ধন্যবাদ ।

 

 
 
 
পাবনা নিউজ২৪.কম
আব্দুল হামিদ রোড, পাবনা-৬৬০০
ই-মেইলঃ [email protected]
ফোন ০১৭৩৩৪৮৮৯৯৪ / ০১৭১১০১৬০১৮