৪ পৌষ ১৪২৪
 
শিরোনামঃ
জেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক টিপুর ভাই আজিম মোল্লা গুলিবিদ্ধ : আশংকাজনক অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেলে ভর্তি   |  পাবনার কৃতি সন্তান সাইফুল আলম স্বপন চৌধুরী বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক পদে দ্বিতীয় বারের মত নির্বাচিত   |  সুজানগর উপজেলা জাতীয়তাবাদী বন্ধুদলের কার্যকারী নির্বাহী কমিটির অনুমোদন   |  বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ইঞ্জিঃ আব্দুল আলীমের ছবি সংবলিত বিলবোর্ড ভাংচুরের প্রতিবাদে ভাঙ্গুড়ায় বিক্ষোভ   |   বিপুল পরিমান মাদক দ্রব্য সহ এক মাদক বব্যসায়ী গ্রেফতার  |  অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে দুদকের দুই সদস্য বিশিষ্ট অনুসন্ধান কমিটি গঠন  |  সাঁথিয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক ব্যাক্তির মৃত্যু   |  ঈশ্বরদীতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস’ পালিত   |  সুজানগরে দ্বিতীয় শ্রেণীর স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে এক পৌঢ় আটক  |  খাদ্যে ভেজালকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে---- জেলা প্রশাসক   |  ঈশ্বরদীতে বিদেশী পিস্তল, রিভলবার, বিপুল পরিমান গোলাবারুদ ও মাদকদ্রব্যসহ দুই অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী গ্রেফতার  |  সাঁথিয়ায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ ছাত্রলীগ সভাপতিসহ আহত-৩  |  চাটমোহর রেলস্টেশনের বুকিং সহকারি মাতাল অবস্থায় গাঁজা সহ আটক  |  ভাঙ্গুড়া উপজেলা ছাত্র শিবিরের সভাপতি ও সেক্রেটারিসহ ৪ শিবির নেতা-কর্মী গ্রেফতার  |  নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ শিকার   |  সুজানগরে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল স্কুল ছাত্রী কেয়া  |  সাংবাদিক এবিএম ফজলুর রহমান পাবনা চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক নির্বাচিত  |  পাবনার সাঁথিযায় অবৈধ দোকান ঘর উচ্ছেদ :সরকারি জমি উদ্ধার  |  এডভোকেট রবিউল করিম রবি বিচারপতি সৈয়দ আমীর আলী স্বর্ণপদকের জন্য মনোনিত  |  রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন বন্ধের প্রতিবাদে ঈশ্বরদীতে মানববন্ধন করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ  |  

সর্বশেষ

সুজানগরে দুই স্কুল ছাত্রীকে গণধর্ষন : ভিডিও চিত্র ইন্টারনেটে প্রকাশ : আ‘লীগের ৬ বখাটের নামে আদালতে মামলা দায়ের

Aug 20, 2017, 10:06:41 PM

সুজানগরে দুই স্কুল ছাত্রীকে গণধর্ষন : ভিডিও চিত্র ইন্টারনেটে প্রকাশ : আ‘লীগের ৬ বখাটের নামে আদালতে মামলা দায়ের

কামাল সিদ্দিক ঃ পাবনার সুজানগরে দুই স্কুল ছাত্রীকে অপহনের পর গণধর্ষনের এবং ইন্টারনেটে ধর্ষনের ভিডিও চিত্র ছেড়েছে প্রভাবশালী আওয়ামী লীগ পরিবারের ৬ বখাটে যুবক। এ ব্যাপারে দুই ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রী বাদী হয়ে ক্ষমতাশীন দলের ৬ ক্যাডারকে আসামী করে রোববার দুপুরে আদালতে মামলা দায়ের করেছে। রোববার দুপুরে পাবনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের ভারপ্রাপ্ত বিচারক অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো: ইমরান হোসেন চৌধূরী মামলাটি গ্রহন করে আসামীদেরকে গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন। মামলা নম্বর ১২৫ ও ১২৬, তাং ২০.৮.১৭। 

মামলার আসামীরা হচ্ছে, ক্ষমতাশীন দলের ক্যাডার হযরত আলী, আল আমিন, শাহিন, মিঠুন, পাংকু ও সোহেল রানা। 

সুজানগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধাারন সম্পাদক ও পৌর মেয়র আব্দুল ওয়াহাবসহ স্থানীয় প্রভাবশালী আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে ধর্ষিতার পরিবারকে নানা রকম হুমকী এবং দফায় দফায় শালিশী বৈঠকের নামে সময় ক্ষেপন করার ১৯ দিন পর অসহায় পরিবারটি আদালতে শরণাপন্ন হয়েছে সুবিচার পাবার আশায়। 

মামলর আইনজীবী রাজিউল্লাহ সরদার রঞ্জু বলেন, সুজানগর থানা পুলিশ মামলা গ্রহন না করায় রোববার আদালতে মামলাটি দায়ের করা হয়। বিজ্ঞ আদালত মামলাটি গ্রহন করায় আমরা ন্যায় বিচার পাব বলে আশা করছি। 

মিামলার বিবরন উল্লেখ করা হয়েছে, সুজানগর পৌর এলাকার চর ভবানীপুর গ্রামের দরিদ্র পরিবারের সন্তান সুজানগর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর দুই ছাত্রী ১ আগষ্ট বিকেলে স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে ৬ বখাটে চর ভবনীপুর মাষ্টার পাড়ার হযরত আলী, আল আমিন, শাহিন, মিঠুন, পাংকু ও সোহেল রানা মিলে জোরপূর্বক অস্ত্রের মুখে তাদের অপহরন করে পাশ্ববর্তী নিকিরী পাড়ার একটি বাশ বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে বখাটেরা জোরপূর্বক পালাক্রমে দুই ছাত্রীকে ধর্ষন করে এবং মোবাইলে সেই ভিডিও চিত্র ধারন করে এবং ঘটনাটি কাউকে জানানো হলে ধর্ষনের ভিডিও চিত্র ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকী দেওয়া হয়। 

দুই ছাত্রী বিষয়টি ভয়ে প্রথম দিকে গোপন রাখে। ঘটনার কয়েক দিন পর ভিডিও চিত্র দেখিয়ে পুনঃরায় তাদের সাথে যাওয়ার প্রস্তাব দিলে তারা তা প্রত্যাখান করে। এরপর বখাটেরা ওই ভিডিও চিত্রটি ফেসবুকে আপলোড করলে মুহুর্তেই ছড়িয়ে পরে ভিডিওটি। বিষয়টি জানা জানি হলে ওই দুই ছাত্রীর অভিভাবকরা থানায় বখাটেদের বিরুদ্ধে মামলা করতে গেলে সুজানগর থানার ওসি মামলা গ্রহন না করে তাদের ফিরিয়ে দেওয়া দেন।

পরে বিষয়টি নিয়ে পৌর মেয়রের কাছে ওই দুই ছাত্রীর দরিদ্র পিতা মাতা বিচার দাবী করলেও তিনি কৌশলে শালীসী বৈঠকের মাধম্যে সময় ক্ষেপন করেন এবং আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ তাদেরকে হুমকী-ধামকী দিতে থাকেন। এক পর্যায়ে বাধ্য হয়েই তারা ঘটনার ১৯ দিন পর আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।  

ঘটনার স্বীকার দুই ছাত্রী বলেন, এই ঘটনার পর থেকে বখাটেদের হুমকীর মুখে আমরা বাড়ির বাইরে যেতে পারছি না এবং কাউকে মুখ দেখাতে পারছি না। সুষ্ঠু বিচার না পেলে আমাদের আত্মহত্যা করা ছাড়া কোন উপায় নেই। 

এ ব্যাপারে ওই দুই ছাত্রীর পিতা-মাতা জানান, আমরা গরিব মানুষ, বখাটেরা প্রভাবশালী আওয়ামীলীগের পরিবারের সন্তান ও আওয়ামীলীগ নেতা পৌর মেয়রের ক্যাডার হওয়ায় থানা পুলিশ ও মেয়রের নিকট আমরা কোন বিচার পাইনি। এ ঘটনার পর থেকে আমারা সমাজে মুখ দেখাতে পারছি না। আদালতের নিকট বখাটেদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবী জানান তারা। 

সুজানগর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি শাহিনুজ্জামান শাহিন বলেন, বখাটেরা পৌর মেয়রের ক্যাডার হওয়ার কারনে থানা মামলাটি গ্রহন করে নেই। আমরা কোর্টে মামলা করার পরামর্শ দিয়েছি তাদের। এই ঘটনার পর থেকেই ওই দুই ছাত্রী বিদ্যালয়ে আসা বন্ধ করে দিয়েছে। তারা চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। এই ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবী করেন তিনি। 

এ ব্যাপারে সুজানগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওবায়দুল হক জানান, এ ধরনের কোন অভিযোগ কেউ আমার নিকট নিয়ে আসে নেই। 

সুজানগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধাারন সম্পাদক ও পৌর মেয়র আব্দুল ওয়াহাব ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, মেয়ে দুটির অভিভাবকরা আমার নিকট এসেছিল। এটা নিয়ে কয়েক দফা শালীসী বৈঠকও হয়েছে, কিন্তু কোন সমাধান হয়নি।   বখাটেরা তার কর্মী বা সমর্থকের বিষয়টি অস্বীকার করে তিনি বলেন, তারা আওয়ামী পরিবারের ছেলে হলেও আমার লোক নয়। এ ঘটনার সাথে আমাকে জড়িয়ে একটি মহল মিথ্যা অপপ্রচার চালাচ্ছে। 

 

 
 
 
পাবনা নিউজ২৪.কম
আব্দুল হামিদ রোড, পাবনা-৬৬০০
ই-মেইলঃ [email protected]
ফোন ০১৭৩৩৪৮৮৯৯৪ / ০১৭১১০১৬০১৮