৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
 
শিরোনামঃ
জেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক টিপুর ভাই আজিম মোল্লা গুলিবিদ্ধ : আশংকাজনক অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেলে ভর্তি   |  পাবনার কৃতি সন্তান সাইফুল আলম স্বপন চৌধুরী বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক পদে দ্বিতীয় বারের মত নির্বাচিত   |  সুজানগর উপজেলা জাতীয়তাবাদী বন্ধুদলের কার্যকারী নির্বাহী কমিটির অনুমোদন   |  বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ইঞ্জিঃ আব্দুল আলীমের ছবি সংবলিত বিলবোর্ড ভাংচুরের প্রতিবাদে ভাঙ্গুড়ায় বিক্ষোভ   |   বিপুল পরিমান মাদক দ্রব্য সহ এক মাদক বব্যসায়ী গ্রেফতার  |  অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে দুদকের দুই সদস্য বিশিষ্ট অনুসন্ধান কমিটি গঠন  |  সাঁথিয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক ব্যাক্তির মৃত্যু   |  ঈশ্বরদীতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস’ পালিত   |  সুজানগরে দ্বিতীয় শ্রেণীর স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে এক পৌঢ় আটক  |  খাদ্যে ভেজালকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে---- জেলা প্রশাসক   |  ঈশ্বরদীতে বিদেশী পিস্তল, রিভলবার, বিপুল পরিমান গোলাবারুদ ও মাদকদ্রব্যসহ দুই অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী গ্রেফতার  |  সাঁথিয়ায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ ছাত্রলীগ সভাপতিসহ আহত-৩  |  চাটমোহর রেলস্টেশনের বুকিং সহকারি মাতাল অবস্থায় গাঁজা সহ আটক  |  ভাঙ্গুড়া উপজেলা ছাত্র শিবিরের সভাপতি ও সেক্রেটারিসহ ৪ শিবির নেতা-কর্মী গ্রেফতার  |  নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ শিকার   |  সুজানগরে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল স্কুল ছাত্রী কেয়া  |  সাংবাদিক এবিএম ফজলুর রহমান পাবনা চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক নির্বাচিত  |  পাবনার সাঁথিযায় অবৈধ দোকান ঘর উচ্ছেদ :সরকারি জমি উদ্ধার  |  এডভোকেট রবিউল করিম রবি বিচারপতি সৈয়দ আমীর আলী স্বর্ণপদকের জন্য মনোনিত  |  রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন বন্ধের প্রতিবাদে ঈশ্বরদীতে মানববন্ধন করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ  |  

সর্বশেষ

শিক্ষক ছাত্র কর্মকর্তা কর্মচারী ধর্মঘটে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় অচল : বেতন সচল : শিক্ষক সমিতির সভায় ভিসির পদত্যাগ দাবী

Oct 30, 2017, 8:22:11 PM

শিক্ষক ছাত্র কর্মকর্তা কর্মচারী ধর্মঘটে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় অচল : বেতন সচল : শিক্ষক সমিতির সভায় ভিসির পদত্যাগ দাবী

পিপ : শিক্ষক, ছাত্র, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ধর্মঘট কর্মবিরতিসহ চর্তুমুখী আন্দোলনে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কর্মকান্ড বন্ধ থাকায় অচল হয়ে পড়েছে বিশ্বববিদ্যালয়ের সার্বিক কার্যক্রম। তবে ৩০ অক্টোবর সোমবার যথারীতি সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা কর্মচারী তাদের অক্টোবর মাসের বেতন পেয়েছেন।
এদিকে গতকাল সোমবার বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির এক সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক ঘটনার জন্য ভিসিকে দায়ী করে তার তীব্র সমলোচনা ও পদত্যাগ দাবী করা হয়। এ সব ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ভিসি প্রফেসর ড. আল নকীব চৌধুরী রোববার রাতে পাবনা ছেড়ে চলে গেছে বলে জানা গেছে।
শনিবার শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়। গতকাল সোমবারও কাজে যোগ দেয়নি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। তবে পাবিপ্রবি’র কর্মচারী সমিতির সভাপতি জামসেদ হোসেন পলাশ বার্তা সংস্থা পিপ‘কে জানান, ভিসির ন্যয় বিচারের আশ্বাসে তারা ধর্মঘট প্রত্যাহার করে আজ মঙ্গলবার থেকে কাজে যোগদান করবেন।
এদিকে শিক্ষক সমিতির জরুরি সাধারণ সভায় ড. আব্দুল আলীমের উপর হামলার ঘটনায় ভাইস-চ্যান্সেলরের ব্যর্থতাকে দায়ী করেছেন শিক্ষকেরা। বার বার একই ধরনের ঘটনা ধামাচাপা দিয়ে দুর্বল প্রশাসন বিশ্ববিদ্যালয়কে এক গভীর সঙ্কটে ফেলে দিয়েছে।
শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোঃ কিসলু নোমান বলেন, 'ভাইস-চ্যান্সেলরের প্রশাসনিক দুর্বলতা এবং বার বার এ ধরনের ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার কারণেই কর্মচারীরা শিক্ষকের গায়ে হাত তোলার সাহস পাচ্ছে।' শিক্ষকরা ব্যাপক ক্ষোভ প্রকাশ করে এবং কঠোর শাস্তির দাবি করে বক্তব্য দেন। শিক্ষক সমিতির সহ-সভাপতি ড. আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, 'এর আগে বহু শিক্ষক লাঞ্ছিত হয়েছে বিচার পাইনি। এবার কোনো ছাড় নেই। ড. আব্দুল আলীমের উপর হামলার সুষ্ঠু বিচার না করতে পারলে ভিসিকে এই ক্যাম্পাস থেকে বিদায় করে দেওয়া হবে।' শিক্ষক সমিতির সভাপতি আওয়াল কবির জয়ের সভাপতিত্বে আয়োজিত জরুরি সভায় আরও বক্তব্য দেন মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ড. এম আবদুল আলীম। ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন সাইফুল ইসলাম, বাণিজ্য অনুষদের ডিন ড. আমিরুল ইসলাম, ছাত্র উপদেষ্টা ড. হাসিবুর রহমান, বাংলা বিভাগের চেয়ারম্যান মুহাম্মদ আরিফ ওবায়দুল্লাহ, টুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের চেয়ারম্যান ড. কামরুজ্জামান, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ড. খায়রুল আলম, লোক প্রশাসন বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মীর খালেদ ইকবাল চৌধুরী, শিক্ষক সমিতির যুগ্ম- সাধারণ সম্পাদক তাহমিনা তাসনিম নাহারসহ অনেক শিক্ষক। এদিকে ভাইস-চ্যান্সেলর বিশ্ববিদ্যালয়কে সঙ্কটের মধ্যে ফেলে গতকাল থেকে ঢাকার বাসায় অবস্থান করছেন। গতকাল প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর ড. আনোয়ারুল ইসলাম কর্মচারীদের পক্ষ নিয়ে কথা বলায় ছাত্ররা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠলে তিনি দ্রুত স্থান ত্যাগ করেন। আজ সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ক্যাম্পাস অচল, ক্লাশ-পরীক্ষা বন্ধ। ছাত্ররা সিকিউরিটি অফিসার হাসিবুর রহমানসহ অপরাধীদের শাস্তির দাবিতে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট ঢেকে স্বাধীনতা চত্বরের পাদদেশে দিনভর অবস্থান করে। কর্মকর্তা-কর্মচারীরা প্রশাসনিক ভবনে সভা করে। শিক্ষক সমিতি জরুরি সাধারণ সভা করে ২ নং গ্যালারিতে। মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ড. এম আবদুল আলীম বার্তা সংস্থা পিপ‘কে বলেন, "অতীতে বহু শিক্ষক এই বিশ্ববিদ্যালয়ে লাঞ্ছিত ও অপমানিত হয়েছেন। আর কোনো শিক্ষক যাতে এভাবে লাঞ্ছনার শিকার না হয়, সেটাই আমি চাই।"
শুক্রবার পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথমবর্ষ ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে কলা ও সামাজিক অনুষদের ডিন ও বাংলা বিভাগের চেয়ারম্যান ড. এম আবদুল আলীমের সঙ্গে গেটের নিরাপত্তাকর্মিদের বাকবিতান্ডার ঘটনা ঘটে। এরই জের ধরে নিরাপত্তা কর্মিরা সংঘবদ্ধ হয়ে ওইদিন সন্ধ্যায় ক্যাম্পাস চত্বরে ড. আলীমকে বেদম মারপিট করে।
বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থীরা শিক্ষককে মারপিট ও লাঞ্ছিতের খবর জানতে পেরে শনিবার সকাল ১১ টার দিকে ক্যাম্পাসের প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে প্রতিবাদ সভা করে। এ সময় কয়েকজন শিক্ষকও ছাত্রদের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে শিক্ষার্থীদের পাশে অবস্থান গ্রহণ করে। এ খবর পেয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা লাঠিসোঠা নিয়ে অবস্থানকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় ছাত্র শিক্ষকরা তাদের প্রতিহত করতে গেলে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ও ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়। ভাঙচুর করা হয় অন্তত ৩০টি মোটরসাইকেল ও প্রশাসনিক ভবনের জানালার কাঁচ। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে।
পাবিপ্রবি’র শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রক্টর আওয়াল কবির জয় বার্তা সংস্থা পিপ‘কে বলেন, শিক্ষক সমিতির সভায় সার্বিক ঘটনা আলোচনা হয়েছে। সভায় ৫ দফা আন্দোলনের কর্মসুচি ঘোষণা করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবির্ক পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক রয়েছে বলে দাবী করেন প্রক্টর।
এদিকে ভিসি প্রফেসর ড. আল-নকীব- চৌধুরীর সঙ্গে ল্যান্ডফোন এবং মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তার অফিস থেকে জানানো হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজে ভিসি ঢাকায় গেছেন।
এদিকে সব কিছু বন্ধ থাকলেও বেতন সচল রয়েছে। গতকাল সোমবার যথারীতি সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা কর্মচারী অক্টোবর মাসের তাদের বেতন পেয়েছেন। পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী পরিচালক (জনসংযোগ) ফারুক হোসেন চৌধুরী বার্তা সংস্থা পিপ‘কে বলেন, নিয়ম অনুযায়ী অক্টোবর মাসের বেতন তারা সবাই পেয়েছেন।  

 
 
 
পাবনা নিউজ২৪.কম
আব্দুল হামিদ রোড, পাবনা-৬৬০০
ই-মেইলঃ [email protected]
ফোন ০১৭৩৩৪৮৮৯৯৪ / ০১৭১১০১৬০১৮