৯ মাঘ ১৪২৪
 
শিরোনামঃ
ভাঙ্গুড়ায় ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত  |  ভাঙ্গুড়ায় স্বেচ্ছাসেবক দলের সম্মেলন অনুষ্ঠিত,আংশিক কমিটি ঘোষনা  |   জেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক টিপুর ভাই আজিম মোল্লা গুলিবিদ্ধ : আশংকাজনক অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেলে ভর্তি   |  পাবনার কৃতি সন্তান সাইফুল আলম স্বপন চৌধুরী বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক পদে দ্বিতীয় বারের মত নির্বাচিত   |  সুজানগর উপজেলা জাতীয়তাবাদী বন্ধুদলের কার্যকারী নির্বাহী কমিটির অনুমোদন   |  বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ইঞ্জিঃ আব্দুল আলীমের ছবি সংবলিত বিলবোর্ড ভাংচুরের প্রতিবাদে ভাঙ্গুড়ায় বিক্ষোভ   |   বিপুল পরিমান মাদক দ্রব্য সহ এক মাদক বব্যসায়ী গ্রেফতার  |  অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে দুদকের দুই সদস্য বিশিষ্ট অনুসন্ধান কমিটি গঠন  |  সাঁথিয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক ব্যাক্তির মৃত্যু   |  ঈশ্বরদীতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস’ পালিত   |  সুজানগরে দ্বিতীয় শ্রেণীর স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে এক পৌঢ় আটক  |  খাদ্যে ভেজালকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে---- জেলা প্রশাসক   |  ঈশ্বরদীতে বিদেশী পিস্তল, রিভলবার, বিপুল পরিমান গোলাবারুদ ও মাদকদ্রব্যসহ দুই অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী গ্রেফতার  |  সাঁথিয়ায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ ছাত্রলীগ সভাপতিসহ আহত-৩  |  চাটমোহর রেলস্টেশনের বুকিং সহকারি মাতাল অবস্থায় গাঁজা সহ আটক  |  ভাঙ্গুড়া উপজেলা ছাত্র শিবিরের সভাপতি ও সেক্রেটারিসহ ৪ শিবির নেতা-কর্মী গ্রেফতার  |  নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ শিকার   |  সুজানগরে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল স্কুল ছাত্রী কেয়া  |  সাংবাদিক এবিএম ফজলুর রহমান পাবনা চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক নির্বাচিত  |  পাবনার সাঁথিযায় অবৈধ দোকান ঘর উচ্ছেদ :সরকারি জমি উদ্ধার  |  

সর্বশেষ

২০১৭ সালে পাবনা সহ সারাদেশে ৭৮৭ জন নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার

Dec 27, 2017, 3:19:38 PM

২০১৭ সালে পাবনা সহ সারাদেশে ৭৮৭ জন নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার

দেশে ক্রমবর্ধমান ধর্ষণের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে দেশের অন্যতম মানবাধিকার সংগঠন বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা।

গত ১২ মাসে ৭৮৭ জন নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এদের মধ্যে নারী ৩১৬ জন , শিশু ধর্ষণের শিকার হয় ৩২৭ জন, গণ ধর্ষণের শিকার হয় ১১৬ এবং ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় ২৮ জনকে। এমন ভয়াবহ তথ্য উঠে এসেছে বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার সাম্প্রতিক এক গবেষণায়।

সংস্থার চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সিগমা হুদা বলেন, বর্তমান সময়টা যেন আমাদের দেশে ধর্ষকদের অভয়ারণ্য হয়ে উঠেছে। একের পর এক ধর্ষণের ঘটনা বেড়েই চলছে। ধর্ষণকারীরা এতটাই সাহস পাচ্ছে যে, ধর্ষণের পর হত্যা করতেও তারা দ্বিধাবোধ করছে না, গবেষণায় আমরা দেখতে পাচ্ছি যে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনাও দিন দিন বেড়ে চলছে। নারীদেরকে নিরাপদ একটি সমাজ না দেয়ার ব্যার্থতা সরকার সহ আমাদের সবাইকেই নিতে হবে। এ অবস্থার উত্তরনের জন্য সকলকে এক হয়ে কাজ করার বিকল্প নেই। আইনের শাসন আমাদের রয়েছে ,তবে নেই তার বাস্তবায়ন। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির বিধান বাস্তবায়ন করলেই আগামী বছরগুলোতে আমাদের দেশে ধর্ষণ অনেকাংশে কমে যাবে বলে আমরা আশাবাদী।

সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মোস্তফা সোহেল বলেন, সংস্থার গবেষণায় আমরা দেখেছি গত বছরের তুলনায় এ বছর ধর্ষণের ঘটনা অনেক বেশী। ধর্ষণ দিন দিন বৃদ্ধি পাওয়ার অন্যতম কারন ধর্ষকের কঠিন শাস্তি না হওয়া। তাছাড়া বিচার কার্য বেশ বিলম্বিত হয় বলে ধর্ষিত নারী ও তার পরিবারকে সম্মুখীন হতে হয় বিভিন্ন মানসিক ও সামাজিক প্রতিবন্ধকতার। অনেক সময় ধামাচাপা পরে যায় ধর্ষণের ঘটনা। এ বিষয়ে সকল সামাজিক সংগঠন গুলোকে  এক হয়ে কাজ করা আহ্বান জানান তিনি। 


ফাতেমা ইয়াসমিন 

কমিউনিকেশন  অফিসার

 

 
 
 
পাবনা নিউজ২৪.কম
আব্দুল হামিদ রোড, পাবনা-৬৬০০
ই-মেইলঃ [email protected]
ফোন ০১৭৩৩৪৮৮৯৯৪ / ০১৭১১০১৬০১৮